কখনো মৌসুমী ফ্লু কিংবা ঠাণ্ডা লাগার খপ্পরে পড়েছেন? যদি পড়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই এর মধ্যেই এক গ্লাস কমলালেবুর জুস কিংবা ভিটামিন 'সি' তে ভরপুর খাবার খাওয়ার উপদেশ এর মধ্যেই পেয়ে গেছেন, কেননা ভিটামিন 'সি' সমৃদ্ধ খাবার খেলে ফ্লু বা ঠাণ্ডা লাগার কারণে দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার যা ক্ষতি হয়েছিল তা বৃদ্ধি পায় ও এসব মৌসুমি ফ্লু ও ঠাণ্ডা লাগা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। ঠিক তেমনভাবেই ইতিবাচক নেতৃত্বগুণের প্রদর্শনের ক্ষেত্রেও তিনটি এমন গুণ রয়েছে যা 'সি' দিয়ে শুরু হয় এবং অনেক উপকারী।

 

নেতৃত্বগুণ বিকাশের জন্য সবচেয়ে বেশী যেটা দরকার তা হল নিজেকে উন্নত করার ইচ্ছা। আপনি অনেক জায়গা থেকে অনেক উপদেশ পাবেন নেতৃত্বগুণ বিকাশের জন্য - কেউ আপনাকে বলবে বড়ভাই বা কোন সহকর্মীর কাছ থেকে সাহায্য নিতে, কেউবা আপনাকে বলবে বিভিন্ন বই বা আর্টিকেল পড়ার জন্য। আপনি এই আর্টিকেলটা পড়ছেন, তার মানে আপনি দ্বিতীয়টা করতেই বেশী স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন!

 

আমাদের অনেকেরই ধারণা নেতৃত্ব একটা অনেক কঠিন আর কষ্টকর একটা কাজ। জিনিসটা কিন্তু তেমন নয়। এটা কঠিন হতে পারে, কিন্তু আপনি যদি আপনার মধ্যে বিশেষ কিছু গুণাবলির বিকাশ ঘটাতে পারেন, তাহলে আপনার মধ্যে নেতৃত্বগুণ অবশ্যই আসবে। স্কুল শিক্ষক থেকে শুরু করে যেকোন ব্যবস্থাপক, কিংবা ব্যবসায়ী থেকে শুরু করে তাঁর কর্মী - যাদের মধ্যেই এই নেতৃত্বগুণের বিকাশ ঘটেছে, তাদের সবার মধ্যেই এই তিনটা 'সি' পাওয়া যায় চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য হিসেবে।

 

তাহলে নেতৃত্বগুণে তিনটা ভিটামিন 'সি' কি কি? দেখে নেওয়া যাক!

 

১. Confidence বা আত্মবিশ্বাস :

যারা নেতা, তারা নিজেদের উপর বিশ্বাস রাখেন এবং তাঁর কর্মীদের উপরেও বিশ্বাস রাখেন। তাদের কর্মকাণ্ডের প্রত্যেকটা ক্ষেত্রে এই আত্মবিশ্বাসের বিচ্ছুরণ দেখা যায়। নিজের মধ্যে আত্মবিশ্বাসের বিকাশ ঘটাতে পারবেন আপনি একটা ছোট কাজ করলে - বিভিন্ন মিটিং বা ক্লাসে, সবার আগে আপনি আপনার বক্তব্যটা দেওয়া শুরু করুন, নিজের কথা সবার আগে সবার মাঝে পৌঁছে দিন। যারা সফল নেতা, তারা সবসময় সবার আগেই নিজের মতটা সবার মাঝে ছড়িয়ে দিতে চান, সেটা সর্বজনস্বীকৃত না হলেও।

 

জন সি ম্যাক্সওয়েলের মতে, "নেতা তিনিই যিনি জানেন কি করতে হয়, কিভাবে করতে হয় ও কিভাবে বাকীদেরকে সেটা করাতে হয়।"

 

২. Competency বা কর্মদক্ষতা/পারদর্শিতা :

আত্মবিশ্বাসী হবার পাশাপাশী সফল নেতাদের নিজেদের উন্নত করার কাজে বা নতুন জ্ঞান আহরণের কাজে নিরন্তর ব্যস্ত থাকতে দেখা যায়। তারা কোন না কোনভাবে সময় বের করে ফেলেন নতুন কিছু জানার জন্য, কিছু পড়ার জন্য - বিশ্বখ্যাত দুই নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিত্ব ওয়ারেন বাফেট ও অপরাহ উইনফ্রে এর উজ্জ্বল দুটি উদাহরণ। তারা দুজনই ব্যক্তিগত ও পেশাগত পর্যায়ের শিখরে আরোহণ করা সত্বেও প্রতিদিন কোন না কোন ভাবে সময় বের করেন জ্ঞান অর্জন করার জন্য, পড়ার জন্য - যা তাদেরকে তাদের পেশাগত ও ব্যক্তিগত জীবনে আরো উন্নত ও পারদর্শী করে তুলতে সাহায্য করে। তাদের এই নিরন্তর জ্ঞান আহরণের ইচ্ছাই তাদেরকে নিজেদের পেশাগত জীবনে করে তোলে আরো বেশী কর্মদক্ষ ও পারদর্শী।

 

৩. Charisma বা ক্যারিশমা :

এটাকে আপনি এখনকার ভাষায় SWAG ও বলতে পারেন। আসলে এই ক্যারিশমা জিনিশটাই ঈশ্বরপ্রদত্ত এমন এক প্রতিভা, যা বাকী সবাইকে আপনার উপর বিশ্বাস রাখতে সাহায্য করে। বাকী মানুষকে আকর্ষণ করার যে ক্ষমতাটা ক্যারিশমা নামে পরিচিত, তা মূলত নিজের উপর আত্মবিশ্বাস রাখারই আরেক সুবিধা। নিজে যা করছেন তাঁর উপর আপনার সহকর্মীদের আস্থা অর্জন করাটা অনেক বেশী গুরুত্বপূর্ণ। খুব বেশী না, নিজের পাশাপাশী আপনার কর্মী বা সহকর্মী কিংবা অন্যান্যদের মতামতকে সম্মান দিতে শিখুন, তাদেরকেও গুরুত্ব দিন, তাদের ভালোমন্দের ব্যাপারে অবগত থাকুন, নিজের উপর আসা যেকোন দায়িত্ব মাথা পেতে নিন - তাহলেই হবে, মানুষ এমনিতেই তখন আপনার উপর আকর্ষিত হবে।

 

গ্যারি ভেইনারচাকের মতে, "আমি যে কাউকে আকর্ষন করতে পারি এটার অর্থ এই-ই না যে আমার খুব ক্যারিশমা আছে বা আমি সবার থেকে ভালো বা আমি অনেক বেশী বহির্মুখী স্বভাবের মানুষ, এর কারণ এটাই যে আমি সবার ব্যাপারে আসলেই অনেক যত্নবান।"

 

অনেক ক্ষেত্রেই নিজের মধ্যে প্রয়োজনীয় নেতৃত্বগুণ না থাকলে আপনাকে পছন্দ করার মত লোক খুঁজে পাওয়া যাবেনা। তাই এই নেতৃত্বগুণের তিন ভিটামিন 'সি' কে যদি নিজের মধ্যেই নিয়মিত চর্চা করতে থাকেন তবে একদিন না একদিন আপনার মধ্যে অবশ্যই এই নেতৃত্বগুণ আসবেই। এই Confidence, Competence আর Charisma দিয়েই একজনের মধ্যে যা যা পরিবর্তন আসে তা পেশাগত জীবনে সফলতা আনতে বাধ্য। Confidence বা আত্মবিশ্বাস একজন নেতাকে নিজের উপর, নিজের কর্মীদের উপর বিশ্বাস রাখতে শেখায়। Competence বা কর্মদক্ষতা একজন নেতাকে আজীবন জ্ঞান আহরণের জন্য ক্ষুধার্ত রাখে, আর যে নেতার মধ্যে Charisma আছে সে অতি সহজেই একদল মানুষকে নিজের চিন্তাধারার প্রতি আকৃষ্ট করতে পারে। ফলে এই তিনটা গুণের বিকাশ নিজের মধ্যে করলে, সাফল্য ধরা দেবেই আপনার হাতে!

 

তথ্যসূত্র - এডিক্টেড টু সাক্সেস।