বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় বিভিন্ন ব্র্যান্ড সম্পর্কে তরুণরা কি ভাবছেন তা দেখার জন্য সম্প্রতি গুগল একটি জরিপ পরিচালনা করে। এতে দেখা যায়, যে ব্র্যান্ডগুলো গড়ে ওঠার পিছনে একটি উদ্যোক্তসুলভ কাহিনী আছে সেগুলোই সবচেয়ে ভালো বলে বিবেচিত হয়। তরুণ প্রজন্মের মধ্যে টেসলা, ফেসবুক, অ্যাপল, এয়ারবিএনবি ইত্যাদি বেশ জনপ্রিয়। তরুণদের মতে, এলন মাস্ক এবং স্টিভ জবসের মতো উদ্যোক্তারা তাদের প্রযুক্তিগত অভিনব উদ্ভাবনের মাধ্যমে আমাদের চারপাশের বিশ্বকে পুনর্নির্মাণ করেছেন। তাঁদের মত সফল উদ্যোক্তাদের দেখে অনুপ্রাণিত হলেও অনেক সময় বাস্তব অভিজ্ঞতার অভাবে তরুণ প্রজন্মের অনেকেই কোন ব্যবসায় উদ্যোগ হাতে নিতে ভয় পান। তরুণদের মধ্যে উদ্যোক্তা সম্পর্কে সাতটি ভুল ধারণা রয়েছে। এই ভুল ধারণাগুলিকে কাটিয়ে উঠতে পারলে আরো অসংখ্য সফল উদ্যোক্তা বেরিয়ে আসবে।

 

entrepreneurentrepreneur

                     

ভুল ধারণা ১। উদ্যোক্তা হতে হলে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার বিশেষ গুরুত্ব নেই।

স্টিভ জব্‌স, মার্ক জুকারবার্গ এবং বিল গেটস- এদের মধ্যে একটা বিষয়ে বেশ মিল। তা হলো এদের কেউই শিক্ষাজীবন পুরোপুরি শেষ করেননি কিন্তু এরা প্রত্যেকেই ভীষণ সফল প্রযুক্তি-উদ্যোক্তা।  তাঁদেরকে উদাহরণ হিসেবে দেখিয়ে অনেকেই মনে করেন সফল উদ্যোক্তা হবার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় ডিগ্রীর প্রয়োজন নেই, কেউ কেউ হয়তো এমনও বলে থাকেন যে তাদের শিক্ষা তাদের উদ্যোক্তা মনোভাবের প্রতিবন্ধকতা ছিল। কিন্তু জব্‌স, জুকারবার্গ এবং গেটস- এরা ব্যতিক্রম। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই, উচ্চাকাঙ্ক্ষী উদ্যোক্তারা প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা থেকে ভাল দিকনির্দেশনা পেতে পারেন এবং তা কাজে লাগাতে পারলে বেশ উপকৃত হন। তাছাড়া অনেকেই জানেন না যে এই ড্রপআউট কিংবদন্তিরাও যতদিন একাডেমিতে ছিলেন ততদিন বেশ মনোযোগী এবং ভাল ছাত্রই ছিলেন। জুকারবার্গ ও গেটস এতই ভালো ছাত্র ছিলেন যে তারা হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগ দিতে সক্ষম হয়েছিলেন।

 

ভুল ধারণা ২। ভাল পণ্যের বিজ্ঞাপন লাগে না।

এমন কিছু ভুল ধারণা আছে যে ভাল জিনিসের বিজ্ঞাপন বা বিপণন পরিকল্পনা করার প্রয়োজন হয় না। অনেক তরুণ উদ্যোক্তাই এই ভুল ধারণার বশবর্তী হয়ে পণ্যের বিপণন পরিকল্পনায় বিশেষ মনোযোগী হন না। তবে বাস্তবতা হচ্ছে, বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই এক তরফা ভাবে শুধুমাত্র পণ্যের গুণগত মান ঠিক রাখার দিকে নজর রাখলেই বাজারে কাঙ্ক্ষিত সফলতা অর্জন করা সম্ভব হয় না, এই প্রতিযোগিতার বাজারে টিকে থাকতে হলে চাই সুপরিকল্পিত বিপণন ব্যবস্থা। পণ্য সম্পর্কে গ্রাহকরা জানতে যদি নাই পারলো তো বিক্রি হবে কীভাবে?

 

উদাহরণ হিসেবে অ্যাপলের iPod এর কথা চিন্তা করুন। বাজারে অ্যাপলের iPod আসার আগেই সনি MP3 বাজারে এনেছিল। কিন্তু অ্যাপলের সুপরিকল্পিত মার্কেটিং এর কারণে তা সহজেই বাজার দখল করে নিতে সক্ষম হয়। মনে আছে iPod এর সেই বিখ্যাত শ্লোগান “1000 songs in your pocket” ? এটিই অ্যাপলকে নতুন উচ্চতায় উন্নীত করতে সাহায্য করেছিল।

 

ভুল ধারণা ৩। সেরা ব্যবসার একমাত্র মূলমন্ত্র সবচেয়ে সেরা ধারণাঃ

উদ্যোক্তা হিসাবে আমরা প্রায়ই বিশ্বাস করি যে সেরা ব্যবসাগুলি সেরা ধারনাগুলির উপর ভিত্তি করে গড়ে উঠে। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে, সফল ব্যবসা হলো এমন একটি বিষয় যা সফলভাবে একটি ভাল ধারণা কাজে লাগাতে পারে। কথাটি শুনতে একই রকম মনে হলেও একটু ভাবলেই বোঝা যায় এর অর্থ একই নয়। একটি ভাল ধারণা উপর ভিত্তি সংগঠিত একটি প্রতিষ্ঠান যে কোনো সম্ভাব্য সমস্যা নিয়ে আগেই ভেবে রাখে এবং তা মোকাবেলা করার পূর্বপরিকল্পনা করে রাখে।
 

সহজভাবে বলা যায়, একটি ভাল ধারণা হলো এক ধরণের উদ্ভাবন, এটি উদ্যোগ নয়। একজন সফল উদ্যোক্তা হওয়ার জন্য ভাল একটি ধারণাকে বাজারে আনতে প্রয়োজনীয় ব্যবসায়িক দক্ষতা শিখতে হবে।

 

ভুল ধারণা ৪। স্মার্ট কর্মীদের পরিচালিত করা প্রয়োজন হয় না

কিছু তরুণ উদ্যোক্তা বিশ্বাস করেন সফল ব্যবসায়ী হতে হলে কেবল স্মার্ট লোকদের প্রতিষ্ঠানে নিয়োগ দিলেই হবে। কিন্তু অনেকেই এটা মাথায় রাখেনা যে স্মার্ট কর্মীদেরও সঠিকভাবে পরিচালিত করা প্রয়োজন। উদাহরণ হিসাবে গুগল এর দিকে দেখুন। 1998 সালে গুগলের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ল্যারি পেজ এবং সের্গেই ব্রিন Eric Schmidt কে কোম্পানির সিইও হিসেবে নিয়োগ দেন। পেজ এবং ব্রিন বুঝতে পেরেছিলেন যে সংগঠনের সফল হওয়ার জন্য অভিজ্ঞ নেতাদের প্রয়োজন হবে। Schmidt সকল স্মার্ট কর্মীদের সঠিকভাবে পরিচালিত করার জন্য গুগলে যথোপযুক্ত এবং কার্যকর ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করেছেন।

 

entrepreneur entrepreneur

 

ভুল ধারণা ৫। গ্রাহকরা জানেন না তাদের কী প্রয়োজন।

কিছু কিছু ক্ষেত্রে, উদ্যোক্তারা গ্রাহকদের প্রতিক্রিয়া উপেক্ষা করে সফল ব্যবসা শুরু করতে সক্ষম হয়েছেন। যখন অ্যাপল কোম্পানি যখন প্রথম আইফোন বাজারে আনে তখন বেশিরভাগ ভোক্তারই একটি বড় স্ক্রিনযুক্ত অথবা একটি ভালো কিবোর্ডযুক্ত স্মার্টফোনের চাহিদা ছিলো। শুধুমাত্র হাতেগোনা কয়েকটি ডিভাইসই অ্যাপল এর তৈরিকৃত স্মার্টফোন ‘আইফোন’ এর ন্যায় বিপ্লব সৃষ্টি করতে পেরেছে।

যাইহোক, কিছু উদ্যোক্তারা তাদের পণ্য বা সেবার উন্নয়ন সাধন করে গ্রাহকদের প্রত্যাশা পূরণে সক্ষম হয়েছেন। তবে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই, একটি নতুন ব্যবসা উন্নয়ন করার সময় গ্রাহককে মতামত নেওয়া অপরিহার্য।

 

ভুল ধারণা ৬ সফলতা হয় খুব দ্রুত আসবে নয়তো আসবেই নাঃ

তরুণ উদ্যোক্তরা ব্রায়ান চেস্কির মত অল্প বয়সেই সফলতা পেতে চান। ব্রায়ান চেস্কি মাত্র ২৬ বছর বয়সে এয়ারবিএনবি প্রতিষ্ঠা করেন এবং ধারণা করেন যে সফলতা আসলে তা খুব দ্রুতই আসবে নয়ত আসবেই না। কিন্তু বাস্তবতা হল, সফলতা বাস্তবায়নের জন্য প্রায়ই সময় লাগে। আগে যেমন উল্লেখ করা হয়েছে, একটি সফল ধারণা তৈরির চিন্তা কেবলমাত্র একটি সফল ব্যবসা তৈরির প্রথম ধাপ। সেই ধারণার বাস্তবায়ন করাই হল সফলতা আনয়নের ক্ষেত্রে সবচেয়ে গুরুতপূর্ণ উপাদান। কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ ব্যবসায়ীক দক্ষতাগুলোতে অভিজ্ঞতা অর্জনের জন্যে কয়েক বছর লেগে যায়, যার ফলে  সফলতার আনয়নের ক্ষেত্রে প্রায়ই সময় বেশী লাগে।

 

 

ভুল ধারণা ৭। বয়স্ক ব্যক্তিরা উদ্ভাবনী নয়।

কালের স্রোতে এটি একটি ভ্রান্ত ধারণা যে: বয়স্ক ব্যক্তিরা উদ্ভাবনী নয়। বাস্তবতা হচ্ছে যেকোনো সফল ব্যবসা উদ্ভাবনী ক্ষমতা এবং অভিজ্ঞতার সংমিশ্রণের উপর নির্ভর করে। আপনার ব্যবসাকে একটি সফল রূপ দেওয়ার জন্যে দরকার সে ব্যবসা সম্পর্কে একটি ভালো ধারনা। এবং সেই ব্যবসাকে সফল করার জন্যে আরো দরকার হয় প্রয়োজনীয় সব ধরনের দক্ষতার যার কিছু কিছু শুধুমাত্র সময়ের সাথেই আয়ত্ত করা যায়।

তরুণ উদ্যোক্তা প্রায় সময় যে ভুলটি করে থাকেন সেটি হচ্ছে তারা মুষ্টিমেয় কিছু সফল প্রতিষ্ঠান বা উদ্যোক্তাকেই উদাহরণ হিসেবে নিয়ে তাদেরকেই অন্ধ অনুকরণ করতে চান। কিন্তু বাস্তবে সফল উদ্যোক্তা হবার জন্য তার চেয়েও বেশি কিছু দরকার, প্রয়োজন উদ্ভাবনী ক্ষমতা ও বিশ্লেষণী দক্ষতা। উদ্যোক্তা হবার ব্যাপারে যে ভুল  ধারণাগুলো তরুণদের মধ্যে বিরাজ করে সেগুলো কাটিয়ে উঠতে পারলে সাফল্যের সম্ভাবনা অনেকাংশেই বেড়ে যায়।

 

তথ্যসূত্র-  www.entrepreneur.com

 

 

ওয়ালমার্টের প্রতিষ্ঠাতা স্যাম ওয়ালটন থেকে শিক্ষনীয় ৪ টি বিষয়

কর্মক্ষেত্রে সফল ব্যাক্তি মাত্রই কি আর্দশ বা সফল নেতা?

ওয়ারেন বাফেট এর জীবন থেকে যে ৫টি শিক্ষা আপনি নিতে পারেন

মাইকেল বি. জর্ডানের কিছু উল্লেখযোগ্য শক্তিশালী উক্তি